June 13, 2024, 10:36 pm

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক অনুমোদিত দৈনিক কুষ্টিয়া অনলাইন পোর্টাল
সংবাদ শিরোনাম :
কৃষক আলমগীর জানতেই পারলেন না বিএসএফ কেন তাকে বেধরক মারলো ! সঠিক তথ্য দিলে এমপি আনার হত্যাকান্ডে গ্রেফতার আওয়ামী লীগ নেতাদের ছেড়েও দেয়া হতে পারে পরিবারের কোনো না কোনো সদস্যকে হারিয়েছে গাজার ৬০ শতাংশ মানুষ বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটার ভোগান্তি/ বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠনের নির্দেশ হাইকোর্টের জমে উঠেছে দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের সর্ববৃহৎ শতবর্ষী ছাগলের হাট এমপি আনার হত্যা/উদ্ধার হাড়-মাংস মানুষের, আনারের কিনা জানতে এখন ডিএনএ কুষ্টিয়ার খোকসায় নদীতে নিখোঁজ স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার ২৫ ঘন্টা পর সর্বজনীন পেনশন স্কিমে নিবন্ধন ৩ লাখ ছাড়িয়েছে, ট্রেজারি বন্ডে ৬২ কোটি টাকা বিনিয়োগ ব্যাংক লেনদেনে আধা ঘণ্টা সময় বাড়ছে, ঈদের পর থেকে কার্যকর হজ নিবন্ধনহীন তিন লাখ মানুষকে মক্কা থেকে বের করে দেয়া হয়েছে

২২১০ কোটি টাকার অন্তর্ভুক্তিমূলক স্যানিটেশন প্রকল্প/ ২৫ জেলার ২৫ পৌরসভায় বাড়ছে স্যানিটেশন সুবিধা

দৈনিক কুষ্টিয়া অনলাইন/
সরকার ২ হাজার ২১০ কোটি ৭০ লাখ ৭৪ হাজার টাকা ব্যয়ে ২৫স জেলা শহরের ২৫টি পৌরসভায় নিরাপদ ও টেকসই স্যানিটেশন ব্যবস্থা এবং সুষ্ঠু বর্জ্য ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে জনস্বাস্থ্য, জীবনযাত্রার মান ও পরিবেশব্যবস্থার উন্নয়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ লক্ষ্যে স্থানীয় সরকার বিভাগের উদ্যোগে ‘বাংলাদেশের ২৫টি শহরে অন্তর্ভুক্তিমূলক স্যানিটেশন’ শীর্ষক প্রকল্প প্রহণ করা হয়েছে।
২০২২ সালের অক্টোবরে শুরু হওয়া প্রকল্পটি শতভাগ বাস্তবায়ন হবে ২০২৭ সালের ৩০ জুন মেয়াদে। দেশের ৮ বিভাগের (ঢাকা, রাজশাহী, খুলনা, চট্টগ্রাম, বরিশাল, সিলেট, ময়মনসিংহ ও রংপুর) মনোনীত ২৫টি জেলা সদরের ২৫টি পৌরসভায় প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হবে।
পরিকল্পনা কমিশন সূত্র জানিয়েছে, স্থানীয় সরকার বিভাগের উদ্যোগে নেওয়া প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর। প্রাক্কলিত ব্যয়ের ২ হাজার ২১০ কোটি ৭০ লাখ ৭৪ হাজার টাকার মধ্যে সরকারের নিজস্ব তহবিল (জিওবি) থেকে জোগান দেওয়া হবে ৩২৮ কোটি ৪৯ লাখ ৪০ হাজার টাকা। এর বাইরে এশীয় পরিকাঠামো বিনিয়োগ ব্যাংক (এআইআইবি) থেকে প্রকল্প ঋণবাবদ সহায়তা পাওয়া যাবে ১ হাজার ৮৮২ কোটি ২১ লাখ ৩৪ হাজার টাকা।
কমিশন জানিয়েছে, বাংলাদেশের জেলা শহরের ২৫টি পৌরসভায় নিরাপদ ও টেকসই স্যানিটেশন সিস্টেম এবং সুষ্ঠু বর্জ্য ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে জনস্বাস্থ্য, জীবনযাত্রার মান ও পরিবেশব্যবস্থার উন্নয়নই প্রকল্প গ্রহণের মূল উদ্দেশ্য।
জানা গেছে, প্রকল্পের আওতায় ১২ হাজার ৩১২টি হাউসহোল্ড ল্যাট্রিন ও ১ হাজার ৩৫০টি কমিউনিটি ল্যাট্রিন, ১৩০টি পাবলিক টয়লেট ও ১৭৩টি ডি-ওয়াট সিস্টেম, ৩১ হাজার ৪৯৬টি পয়োবর্জ্য ধারক বা কন্টেইনমেন্ট সিস্টেম ও ২৭টি পয়োবর্জ্য বা ফেকাল স্লাজ ড্রাইং সিস্টেম, ৩০টি কঠিন বর্জ্য বা সলিড ওয়েস্ট ব্যবস্থাপনা প্ল্যান্ট (সর্টিং, কম্পোস্টিং, ল্যান্ড ফিলিং, তরল বর্জ্য পরিশোধন বা লিচেট ট্রিটমেন্ট) ও ৩২টি কঠিন ও পয়োবর্জ্য পরিশোধনাগার নির্মাণ করা হবে। সম্পদে পরিবর্তন, পুনর্ব্যবহার ও রূপান্তরের লক্ষ্যে আধুনিক, উদ্ভাবন সমৃদ্ধ, যান্ত্রিক প্রযুক্তি, ৩৪৭ কিলোমিটার বিভিন্ন ধরনের আরসিসি ড্রেন, ৩০টি উৎপাদক নলকূপ, ১০০ কিলোমিটার পাইপ লাইন, ১০০টি ডিস্লাজিং ট্রাক ও ৫০টি ডাম্প ট্রাক, ২৭০টি কঠিন বর্জ্য সংগ্রাহক ভ্যান ও ৮১০টি হ্যান্ড ট্রলি এবং ২৫টি এক্সক্যাভেটর সংগ্রহ করা হবে।
সূত্র আরও জানায়, প্রকল্পটি চলতি ২০২২-২৩ অর্থবছরের এডিপিতে অন্তর্ভুক্ত নেই। তবে প্রকল্পটি প্রক্রিয়াকরণের লক্ষ্যে আন্তমন্ত্রণালয় প্রোগ্রামিং কমিটির সুপারিশ গ্রহণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্ধারিত ছক পূরণ করে সারসংক্ষেপ কার্যক্রম বিভাগে পাঠানো হয়েছে। এ প্রকল্পের বিষয়ে পরিকল্পনামন্ত্রীর নীতিগত অনুমোদন গ্রহণপূর্বক পিডিপিপি ইআরডিতে পাঠানো হয়েছে। পিডিপিপির ধারাবাহিকতায় প্রকল্পটি অনুমোদনের প্রক্রিয়া করা হয়েছে।
সরকারের অষ্টম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার অধ্যায়-৯-এর অনুচ্ছেদ-৯.৯.২ এ সবার জন্য নিরাপদ পানি সরবরাহ ও স্যানিটেশন নিশ্চিত করার বিষয়ে অগ্রাধিকার প্রদান করা হয়েছে। এ ছাড়া আরবান ডেভেলপমেন্ট খাতে শহর এলাকায় ২০২৫ সালের মধ্যে স্যানিটেশন সুবিধা ১০০ শতাংশ এবং প্রতিদিন কঠিন বর্জ্য সংগ্রহে ৭৫ শতাংশ লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রস্তাবিত প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের ১০টি অগ্রাধিকারভিত্তিক শহরে সমন্বিত স্যানিটেশন ও হাইজিন কার্যক্রম ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হবে বিধায় প্রকল্পটি সরকারের অষ্টম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার সঙ্গে সংগতিপূর্ণ।
একনেকে অনুমোদনের স্বপক্ষে পরিকল্পনা কমিশন প্রকল্পটি সম্পর্কে দেওয়া মতামতে বলেছে, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে বাংলাদেশের ২৫টি জেলা শহরের সদর পৌরসভায় নিরাপদ স্যানিটেশন বাস্তবায়ন এবং বর্জ্য ব্যবস্থাপনার উন্নয়নের মাধ্যমে শহরগুলোর পরিবেশ সংরক্ষণ এবং বসবাসরত জনগণের স্বাস্থ্য ও জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন করা সম্ভব হবে। এমন পরিস্থিতিতে স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতায় জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর কর্তৃক বাস্তবায়নের জন্য প্রস্তাবিত ‘বাংলাদেশের ২৫টি শহরে অন্তর্ভুক্তিমূলক স্যানিটেশন প্রকল্প (জিওবি-এআইআইবি)’ শীর্ষক প্রকল্পটি ২ হাজার ২১০ কোটি ৭০ লাখ ৭৪ হাজার টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে এবং ২০২২ সালের অক্টোবর থেকে ২০২৭ সালের জুন মেয়াদে বাস্তবায়নের নিমিত্ত একনেকের অনুমোদনের জন্য সুপারিশ করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..


Leave a Reply

Your email address will not be published.

পুরোনো খবর এখানে,তারিখ অনুযায়ী

MonTueWedThuFriSatSun
     12
10111213141516
17181920212223
24252627282930
       
2930     
       
    123
       
   1234
26272829   
       
293031    
       
    123
25262728293031
       
  12345
27282930   
       
      1
9101112131415
3031     
    123
45678910
11121314151617
252627282930 
       
 123456
78910111213
28293031   
       
     12
3456789
24252627282930
31      
   1234
567891011
19202122232425
2627282930  
       
293031    
       
  12345
6789101112
       
  12345
2728     
       
      1
3031     
   1234
19202122232425
       
293031    
       
    123
45678910
       
  12345
27282930   
       
14151617181920
28      
       
       
       
    123
       
     12
31      
      1
2345678
16171819202122
23242526272829
3031     
     12
3456789
10111213141516
17181920212223
242526272829 
       
© All rights reserved © 2021 dainikkushtia.net
Design & Developed BY Anamul Rasel