November 28, 2023, 9:22 pm

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক অনুমোদিত দৈনিক কুষ্টিয়া অনলাইন পোর্টাল
সংবাদ শিরোনাম :
নির্বাচন/আ’লীগের ২৯৮ আসনে নতুন মুখ ১০৪, কুষ্টিয়াসহ দুটি আসন শুন্য, শরীকদলের সিদ্ধান্ত ঝুলে আছে এইচএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশ/পাসের হার ৭৮.৬৪ শতাংশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন/খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় ক্ষমতাসীন দলের সর্বশেষ হালচাল ইসরায়েল-ফিলিস্তিন নিয়ে মন্তব্য, জার্মানিতে প্রদর্শনী বাতিল বির্তকিত আলোকচিত্রশিল্পী শহিদুল আলমের ঝিনাইদহ/স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা পিটার হাসের পরিকল্পনায় বাংলাদেশে সরকারবিরোধী সমাবেশ: রাশিয়া কুষ্টিয়ায় হাইওয়ে পুলিশের জব্দকৃত বাসে আগুন ইবিতে সমঝোতা স্মারক চুক্তি স্বাক্ষর রাজনীতি কল্যাণের জন্য, কষ্ট দেওয়ার জন্য নয়: প্রধানমন্ত্রী জেলা পরিষদের নির্মানাধীন ভবনের বঙ্গবন্ধু মুর‌্যাল পূণঃস্থাপন

পরিস্থিতি উন্নতি হলে জুনের মধ্যে খুলছে স্কুল-কলেজ, তবে বিশ্ববিদ্যালয় খুলতে শর্ত রয়েছে

দৈনিক কুষ্টিয়া প্রতিবেদন/
পরিস্থিতির উন্নতি হলে জুনের মধ্যে স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার ইচ্ছা আছে সরকারের। তবে বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়ার বিষয়টি নির্ভর করছে শিক্ষক-শিক্ষার্থী সবাইকে করোনার টিকার আওতায় নিয়ে আশার ওপর।

বুধবার (২৬ মে) দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর চলমান ছুটি ও শিক্ষা সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এসে এমন মন্তব্য করেন শিক্ষামন্ত্রী।

এর আগে তিনি বলেন, ‘যদি ১৩ জুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে পারি সেক্ষেত্রে ২০২১ সালের এসএসসি-এইচএসসি ব্যাচকে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। তারা হয়তো সপ্তাহের ছয়দিন ক্লাসে আসবে। যারা ২০২২ সালের এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার্থী, তাদের ছুটির দিন ছাড়া বাকি দিনগুলোতে ক্লাসে নিয়ে আসা হবে। অন্যদের বিষয়ে সপ্তাহে হয়তো একদিন ক্লাসে আনা হবে।’

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও শিক্ষা কার্যক্রম চলছে। অনেক সীমাবদ্ধতার মধ্যেও এটি চলছে। বন্ধ রাখা আমাদের উদ্দেশ্য নয়। আমরা দ্রুত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খুলে দিতে চাই। মাঝখানে করোনার পরিস্থিতি ভালো হওয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার ঘোষণাও দিয়েছিলাম। কিন্তু মাঝখানে হঠাৎ করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়। ঈদে বাড়ি যাওয়ায় বিভিন্ন জেলায় সংক্রমণের হার বেড়েছে। এসব বিষয়ও আমাদের মাথায় রাখতে হচ্ছে।’
এড়ড়মষব ঘবংিগুগল নিউজ-এ ঢাকা পোস্টের সর্বশেষ খবর পেতে ফলো করুন।

দীপু মনি বলেন, জীবন-জীবিকার জন্য সবকিছু চলছে। অর্থনীতির ওপর বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। ফলে বাংলাদেশের অর্থনীতি চাঙা রয়েছে। তবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কেন খোলা হচ্ছে না, সবাই এমন প্রশ্ন করছেন। আমাদের একটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে, শুধু শিক্ষার্থী নয় তাদের পরিবারও আছে। তাদের বাসায় অনেক বয়োজ্যেষ্ঠ রয়েছেন, তাদের বিষয়টিও আমাদের মাথায় রাখতে হচ্ছে।
ফযধশধঢ়ড়ংঃ
জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার করা হচ্ছে ডেস্ক-চেয়ার, চলছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার প্রস্তুতি

‘স্কুল-কলেজ খোলা নিয়ে সবসময় করোনার চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় গঠিত ‘জাতীয় টেকনিক্যাল পরামর্শক কমিটি’র পরামর্শক এবং তাদের উপস্থাপিত বৈজ্ঞানিক বিষয়ের ওপর গুরুত্ব দিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে। সংক্রমণের হার কত শতাংশ নেমে আসলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খুলে দেওয়া সম্ভব— এমন প্রশ্ন আমাদের করা হয়। আমরা দেখছি সংক্রমনের হার ৫ শতাংশের ওপরে। এটি মাথায় রেখে, বিজ্ঞানের মধ্যে থেকে আমাদের সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে।’

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এখন অঞ্চলভিত্তিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খুলে দেওয়ার বিষয়ে অনেকেই মতামত দিচ্ছেন, এটিও আমাদের মাথায় আছে। নানা অনিশ্চয়তা-সংশয়ের মধ্যে সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনের শুরুতে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকপর্যায়ের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি ১২ জনু পর্যন্ত বাড়ানোর ঘোষণা দেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। তিনি বলেন, ঈদের সময় ব্যাপক মানুষের চলাফেরা হয়েছে। ফলে করোনার সংক্রমণ বেড়েছে। সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি কোনো কোনো জেলায় বেশি। এসব মাথায় রেখে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি জুনের ১২ তারিখ পর্যন্ত বাড়ানো হলো।

তিনি আরও বলেন, করেনার মধ্যে স্কুলে ভর্তি, বিনামূল্যে বই বিতরণসহ অন্যান্য কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের কারণে সব শিক্ষার্থীর ইন্টারনেট সুবিধা নিশ্চিত করা যায়নি। নিরবচ্ছিন্ন ইন্টারনেট সেবা সম্ভব নয়। অ্যাসাইনমেন্টের মতো নতুন বিষয় আমরা যুক্ত করেছি। অ্যাসাইনমেন্ট নিয়ে সংশয় থাকলেও সবাই এটা ভালোভাবে নিয়েছে। ৯৩ শতাংশ শিক্ষার্থী অ্যাসাইমেন্টে অংশগ্রহণ করেছে। ফলে ঝরে পড়ার আশংকা অনেকটা দূর হয়েছে। এটা নিয়ে গবেষণা হচ্ছে। সারাদেশের দুই হাজার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে তথ্য যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘করোনার চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ত করতে পেরেছি। তারা যাতে বই পড়ে, তারা যেন অ্যাসাইনমেন্টে অংশগ্রহণ করে…, লকডাউনের মাঝখানে এটা বন্ধ ছিল কিন্তু এখন আবার শুরু হয়েছে। টেলিভিশনের ক্লাসের পাশাপাশি স্কুলগুলোতে অনলাইনে ক্লাস হচ্ছে। সারাদেশের পাঁচ হাজার শিক্ষককে অনলাইন ক্লাস করানোর ওপর প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।’

করোনার প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে দীর্ঘ এক বছরেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ থাকা দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী। তিনি বলেন, এখনো করোনার ঝুঁকি সম্পূর্ণ কমেনি। সম্প্রতি ঈদযাত্রায় স্বাস্থ্যবিধি ভঙ্গ হওয়ায় করোনার পরিস্থিতি অবনতির আশঙ্কা রয়েছে। তাই আগামী ১২ জুন পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সাধারণ ছুটি বৃদ্ধি করা হয়েছে। তবে যেকোনো মুহূর্তে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, শিক্ষার্থীরা যেন কোনোভাবেই ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেটি নিশ্চিত করা হবে। অনলাইন ক্লাস শুরুর পর ডিজিটাল ডিভাইসের যে অসামঞ্জস্যতা তৈরি হয়েছিল সেটি অ্যাসাইনমেন্ট কার্যক্রমের মাধ্যমে কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হয়েছে। শতকরা ৯৩ শতাংশ শিক্ষার্থী অ্যাসাইনমেন্টন কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেছে।

স্থগিত হওয়া মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার ব্যাপারে মন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালের মাধ্যমিক পরীক্ষার আগে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসের আলোকে ৬০ কার্যদিবস এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার আগে ৮৪ কার্যদিবস ক্লাসের পর শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন। যেহেতু ২০২২ সালের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরাও এখন ক্লাস করতে পারছে না তাই তাদের পরীক্ষাও সংক্ষিপ্ত সিলেবাসের আলোকে যথাক্রমে ১৫০ কার্যদিবস ও ১৮০ কার্যদিবস ক্লাসের পর গ্রহণ করা হবে।

সব শিক্ষার্থীকে টিকার আওতায় এনে খুলে দেওয়া হবে বিশ্ববিদ্যালয়/

করোনার নতুন যে টিকা আসছে সেখান থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে টিকা দেওয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ বিষয়ে সম্মতি দিয়েছেন। সব শিক্ষার্থীকে করোনার টিকার আওতায় এনেই বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়া হবে— জানান শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

তিনি বলেন, আগামী দুই মাসের মধ্যে সকল পর্যায়ের শিক্ষার্থীর (মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক) শিক্ষাকার্যক্রম পরিপূর্ণভাবে নিশ্চিত করা যাবে। সেটা অনলাইনে কিংবা সশরীরে, যেকোনো ভাবেই হোক। আমরা এটি নিশ্চিতের চেষ্টা করছি।

মন্ত্রী বলেন, করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলতে দেরি হচ্ছে। তবে টেলিভিশন ও অনলাইনে পাঠদান চলছে। আগামীতে হয়তো সশরীরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলতে পারব। তবে দেশের কোথাও লকডাউনের প্রয়োজন হলে বা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে হলে শিক্ষার্থীরা যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেদিকে আমাদের নজর থাকবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষক যাদের বয়স চল্লিশের ঊর্ধ্বে, তাদের প্রায় সবাই টিকা নিয়েছেন। এখনও যারা বাদ আছেন তারাও দ্রুত সময়ের মধ্যে নিতে পারবেন। সে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) তথ্য মতে, সারাদেশে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর সংখ্যা সাড়ে তিন লাখ। তাদের মধ্যে ১২০টি আবাসিক হলে এক লাখ ৩০ হাজার শিক্ষার্থীর আসন আছে। কিন্তু সেখানে থাকেন দুই লাখের বেশি শিক্ষার্থী। আবাসিক শিক্ষার্থীদের মধ্যে সর্বশেষ ৯১ হাজার শিক্ষার্থীর জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়া গেছে। তাদের পুরো তালিকা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কাছে দিয়েছে ইউজিসি। সবমিলিয়ে এক লাখ তিন হাজার শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মচারীর তথ্য দেওয়া হয়েছে। তাদের সবাইকে দ্রুত সময়ের মধ্যে টিকার আওতায় আনা হবে।

ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে আরও যুক্ত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন, শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান নওফেল, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন, কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব গোলাম মো. হাসিবুল আলম, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক প্রফেসর সৈয়দ গোলাম মো. ফারুক, প্রাথমিক শিক্ষা অফিদফতরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহাম্মদ মনসুরুল আলম, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সদস্য প্রফেসর ড. সাজ্জাদুল হাসান, জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর নারায়ণ চন্দ্র সাহা, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর নেহাল আহমেদ।

নিউজটি শেয়ার করুন..


Leave a Reply

Your email address will not be published.

পুরোনো খবর এখানে,তারিখ অনুযায়ী

MonTueWedThuFriSatSun
  12345
27282930   
       
      1
9101112131415
3031     
    123
45678910
11121314151617
252627282930 
       
 123456
78910111213
28293031   
       
     12
3456789
24252627282930
31      
   1234
567891011
19202122232425
2627282930  
       
293031    
       
  12345
6789101112
       
  12345
2728     
       
      1
3031     
   1234
19202122232425
       
293031    
       
    123
45678910
       
  12345
27282930   
       
14151617181920
28      
       
       
       
    123
       
     12
31      
      1
2345678
16171819202122
23242526272829
3031     
     12
3456789
10111213141516
17181920212223
242526272829 
       
© All rights reserved © 2021 dainikkushtia.net
Design & Developed BY Anamul Rasel